সুচিকে প্রতিদান দিল সেনাবাহিনী

মিয়ানমারে রাখাইনে রোহিঙ্গা মুসলিম নিধনের অন্যতম নায়ক ছিলেন অং সান সুচি। দেশটির রাখাইন রাজ্যে রোহিঙ্গা মুসলিমদের বিরুদ্ধে সেনাবাহিনী ভয়াবহ নৃশংসতা, নারকীয়তা আর তাণ্ডবলীলা চালিয়েছে। অথচ গণতন্ত্রের প্রতীক, শান্তির প্রতীক হয়ে ওঠা অং সান সুচি নিজের সারাজীবনের অর্জন বিসর্জন দিয়ে সেই সেনাবাহিনীর পাশে দাঁড়িয়েছিলেন।

জাতিসংঘের সর্বোচ্চ আদালতে দাঁড়িয়ে তিনি কিভাবে এই সেনাবাহিনীকে বাঁচাতে মিথ্যাচার করেছেন! নিজের অর্জন, মর্যাদা জলাঞ্জলী দিয়ে অবলীলায় বলে গেছেন, রাখাইনে কোনো গণহত্যা হয়নি। তবে সেখানে সহিংসতার কথা স্বীকার করেছেন তিনি। ক্ষমতার দ্বন্দ্বে সেই সেনাবাহিনী তাকে প্রতিদান দিয়েছে!

সোমবার (১ ফিব্রুয়ারি) ভোরে সুচি ও দেশটির প্রেসিডেন্টকে সেই সেনাবাহিনী আটক করেছে। দেশটিতে সেনা অভ্যুত্থানের আভাস পাওয়া যাচ্ছে। অথচ এই সেনাবাহিনীর জন্য তিনি সারা বিশ্বের কাছে নির্লজ্জের মতো মিথ্যা বলেছেন। নিজের অর্জিত সারা জীবনের পুরষ্কার, পদক জলাঞ্জলি দিয়েছেন।

রোহিঙ্গা গণহত্যার অভিযোগে জাতিসংঘের বিচার আদালতে গাম্বিয়ার করা মামলায় শুনিানির দ্বিতীয় দিনে বক্তব্য রাখেন সুচি। সেখানে তিনি বলেন রাখাইনে সহিংসতার কথা স্বীকার করলেও একে কোনোভাবেই গণহত্যা বলা যায় না বলে মন্তব্য করেন।