হিজাব পরেই হোয়াইট হাউজে ফিরলেন রুমানা

হিজাব পরে হোয়াইট হাউজে ফিরেছেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভুত রুমানা আহমেদ। তিনি হিজাব পরার কারনে হোয়াইট হাউজে ট্রাম্পের টিমের বিদ্বেষের শিকার হয়েছিলেন। ওই সময় তিনি হোয়াইট হাউজ ছাড়লেও নবনির্বাচিত মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের শাসনামলে আবারো হোয়াইট হাউজে নিজের জায়গা করে নিয়েছেন।

তিনি ইউনাইটেড স্টেটস এজেন্সি ফর গ্লোবাল মিডিয়ার (ইউএসএজিম) রিভিউ প্যানেলের সাত সদস্যের সঙ্গে কাজে যোগ দিয়েছেন।

হিজাব পরায় ট্রাম্পের টিমের কাছে প্রায়ই অপদস্ত হতেন রুমানা। তাকে কেউই স্বাভাবিকভাবে নিতে পারত না। ২০১৭ সালে পদত্যাগের নেপথ্য এই কারণগুলো জানিয়ে দ্য আটলান্টিকে একটি কলাম লেখেন রুমানা। ওই লেখা প্রকাশিত হওয়ার পর যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে সমালোচনার ঝড় বয়ে যায়।

রুমানা কলামে লিখেন, ‘আমার কাজ ছিল দেশের সেবা করা। ওয়েস্ট উইংয়ে আমি ছিলাম একমাত্র হিজাবি নারী। ওবামা প্রশাসন সব সময় আমাকে স্বাগত জানিয়েছে। কিন্তু ট্রাম্প ক্ষমতায় আসার পর সব বদলে যায়। অন্য মুসলিমদের মতো ২০১৬ সালে আমিও ট্রাম্পের কাজকর্ম দেখতে থাকি। আমি ভেবেছিলাম, দেশের জন্য তার প্রশাসনে আমার থাকা উচিত। কিন্তু আমি মাত্র আটটা দিন টিকতে পেরেছিলাম সেখানে।’

তিনি বলেন, ‘আমি ১২ বছর বয়স থেকে হিজাব ব্যবহার শুরু করি। পরিবার আমাকে উৎসাহিত করলেও এটা আমার নিজেরই পছন্দ ছিল। এটা ছিল আমার বিশ্বাসের, সত্ত্বার এবং সহনশীলতার প্রতীক।’