নেতাজির বদলে, প্রসেঞ্জিতের ছবিতে স্যালুট দিলেন ভারতের রাষ্ট্রপতি

নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বসুর ১২৫ তম জন্মদিনের দিন ‘গুমনামী বাবা’ ছবিতে প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায় অভিনীত নেতাজির যে ছবি সেই ছবি উন্মোচন করেছেন রাষ্ট্রপতি এমন অভিযোগ করলেন তৃণমূল সাংসদ মহুয়া মৈত্র।

সুভাষ চন্দ্র বসুর জন্মজয়ন্তী পালন ও মমতার প্রতিবাদ-পাল্টা বিজেপির অভিযোগ নিয়ে সরগরম রাজনীতির ময়দান। এরই মধ্যে ফের নেতাজির ‘ভুল’ প্রতিকৃতি উন্মোচন করেছেন রাষ্ট্রপতি রাম নাথ কোবিন্দ, এমন টুইট করে বিতর্ক বাড়ালেন সাংসদ। যদিও টুইট করেও পরে সেই টুইট ডিলিট করেন তিনি।

টুইটে মহুয়া লিখেছেন, রাম মন্দিরের জন্য ৫ লক্ষ টাকা অনুদান দেওয়ার পর রাষ্ট্রপতি প্রসেনজিৎ অভিনীত নেতাজির বায়োপিকের সেই নেতাজির ছবি রাষ্ট্রপতি ভবনে উন্মোচন করলেন। হে ভগবান ভারতকে বাঁচান। (কারণ এই সরকার আর পারছে না)।

ফেসবুক ও টুইটারে president of india পেইজে গিয়ে দেখা যায় আসলেই প্রসেঞ্জিতের ‘গুমনামী বাবা’ ছবিতে ব্যবহৃত ছবিটি ব্যবহার করা হয়েছে। যেটা আসলে নেতাজি নয় প্রসেঞ্জিতের ছবি।

গত শনিবার (২৩ জানুয়ারি) ভারতের রাষ্ট্রপতি ভাবনে নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বসুর প্রতিকৃতি উন্মোচন করা হয়েছে। নেতাজির ১২৫ তম জন্মদিন পালনের জন্য বছরব্যাপী আয়োজনের জন্য ভারতের রাষ্ট্রপতি ভবনে এই প্রতিকৃতি নির্মাণ করা হয়। যেখানে রাষ্ট্রপতি কোবিন্দ সম্মান জানিয়েছেন। গত শনিবার পোস্ট করা ছবিগুলো এখনো ফেসবুক ও টুইটারে রয়েই গেছে, সেখানে অনেকেই বলার চেষ্টা করছেন ওই প্রতিকৃতি প্রসেঞ্জিতের।

তবে ইন্ডিয়া টুইডের প্রতিবেদন অনুসারে, তৃণমূল কংগ্রেসের এই দাবিকে উড়িয়ে দিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। এটা নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বসুর আসল ছজবি থেকেই প্রতিকৃতি তৈরি করা হয়েছে বলে দাবি সরকারি তরফে।

বিজেপির বরাত দিয়ে এনডিটিভি বলছে, পদ্মশ্রী পুরস্কার পাওয়া শিল্পী পরেশ মাইতিকে নেতাজির পরিবারের পক্ষ থেকে এই ছবি সরবরাহ করা হয়েছে। সেই ছবি থেকেই এই পোট্রেট করেছেন শিল্পী। এটা নিয়ে বিতর্ক করার কিছু নেই।