চাকরির দাবিতে রাবি ভিসির বাসভবনে তালা ছাত্রলীগের

চাকরির দাবিতে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) ভিসি অধ্যাপক এম আব্দুস সোবহানের বাসভবনের প্রধান ফটকে তালা দিয়েছেন ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। সোমবার রাত সাড়ে ৯টা থেকে দেড় ঘণ্টাব্যাপী ভিসির বাসভবনের মূল ফটকে তালা লাগিয়ে দেন তারা। এতে ভিসিসহ দুই প্রোভিসি ও প্রক্টর অবরুদ্ধ হয়ে পড়েন।

এ বিষয়ে রাবি ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি ফারুক হাসান বলেন, শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে একটি চিঠি দিয়ে নিয়োগ কার্যক্রম স্থগিত রাখতে বলা হয়েছে। তার (ভিসি) অপরাধে আমাদের নিয়োগ কেন বন্ধ থাকবে? রাবি ভিসি যদি দুর্নীতি করে থাকেন, তাহলে তাকে কেন অপসারণ করা হচ্ছে না? অপসারণ না করে বিশ্ববিদ্যালয় নিয়োগ কার্যক্রম বন্ধ করে রাখা হয়েছে। আমরা মনে করি, এটা বেআইনি কাজ। তাই আমরা এর প্রতিবাদে রাবি ভিসিকে অবরুদ্ধ করে রেখেছি।

রাবি ছাত্রলীগের সভাপতি গোলাম কিবরিয়া বলেন, আমি গণমাধ্যম থেকে জেনেছি নিয়োগ বন্ধ থাকা সত্ত্বেও একজনকে নিয়োগ দেয়া হয়েছে। অথচ তাদের নিয়োগ বন্ধ। তাই ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা ভিসির বাসভবন অবরুদ্ধ করেছেন। তবে সরাসরি কিছু জানেন না বলে মন্তব্য করেন তিনি।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক লুৎফর রহমান জানান, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে এক চিঠির প্রেক্ষিতে একজন প্রতিবন্ধী চাকরি প্রার্থীকে বিশ্ববিদ্যালয়ে আজ চাকরি দেয়া হয়েছে। এই বিষয়টা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা জানার পর ভিসির সাথে দেখা করলে ভিসি বলেছেন, শিক্ষামন্ত্রণালয়ের নির্দেশে সকল নিয়োগ স্থগিত আছে। যদিও তারা চাকরির পরীক্ষা দিয়েছে সরকারি নির্দেশের আগে আমরা কিভাবে নিয়োগ চালু করবো? বিষয়টি বলার পরও তারা ভিসিকে তার নিজ বাসভবনে তালাবদ্ধ করে অবরুদ্ধ করে রেখেছেন। এবং প্রশাসন ভবনেও তালা ঝুলিয়েছেন। আমরা তাদেরকে বোঝানোর চেষ্টা করছি।