ভাতিজিকে উত্ত্যক্তের প্রতিবাদ করায় চাচাকে কুপিয়ে হত্যা

মাগুরার শ্রীপুর উপজেলায় ভাতিজিকে উত্ত্যক্তের প্রতিবাদ করায় মশিউর রহমান (৪৫) নামের এক ব্যক্তিকে কুপিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে প্রতিপক্ষ দলের সমর্থকদের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় ২০টি বসতবাড়িতে ভাঙচুর ও লুটপাট চালানো হয় বলে জানা গেছে।

নিহত মশিউরের স্ত্রী লতিফা বেগম জানান, স্থানীয় রাজনৈতিক আধিপত্য নিয়ে শ্রীকোল ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান মুতাসিম বিল্লাহ সংগ্রাম ও সাবেক চেয়ারম্যান কুতুবুল্লাহ কুটির সমর্থকদের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছে। নিহত মশিউর রহমান বর্তমান ইউপি চেয়ারম্যান সংগ্রামের সমর্থক ছিলেন। এ কারণে প্রতিপক্ষের লোকেরা দীর্ঘদিন ধরে তাঁকে নানাভাবে হয়রানি করে আসছে।

এর মধ্যে বেশ কিছুদিন ধরে মশিউরের ভাতিজিকে উত্ত্যক্ত করে আসছিলেন প্রতিপক্ষ দলের সমর্থক সিহাব। এর প্রতিবাদ করায় মশিউর রহমান ও তাঁর মামাতো ভাই ডলার মিয়ার সঙ্গে প্রতিপক্ষ দলের মুক্তার হোসেনের বাকবিতণ্ডা হয়। এ সময় মুক্তার হোসেন তাঁদের বিভিন্নভাবে হুমকি-ধমকি দেন।

এর জের ধরে সিহাব ও মশিউরসহ তাঁদের লোকজন আজ মঙ্গলবার সকালে মশিউর রহমানকে একা পেয়ে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে মারাত্মক জখম করে। পরে গুরুতর আহত অবস্থায় তাঁকে মাগুরা ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট সদর হাসপাতালে নেওয়ার পথে তাঁর মৃত্যু হয়।

মাগুরার শ্রীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আলী আহমেদ মাসুদ জানান, অভিযুক্তদের গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে। পরবর্তী সহিংসতা এড়াতে এলাকায় পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। লাশ ময়নাতদন্তের জন্যে মর্গে পাঠানো হয়েছে।