পাওয়ার গ্রিড কোম্পানিতে অগ্নিকাণ্ড ঘটছে

যথাযথ রক্ষণাবেক্ষণের অভাবে একের পর এক বিদ্যুৎ গ্রিডে অগ্নিকাণ্ড ঘটছে। শুধু সঞ্চালনের দায়িত্বে থাকা পাওয়ার গ্রিড কোম্পানিতেই (পিজিসিবি) নয়, বিতরণ কোম্পানির আঞ্চলিক গ্রিডেও অগ্নিকাণ্ড ঘটছে প্রায়ই। উন্নত দেশে এ ধরনের অগ্নিকাণ্ড বিরল হলেও বাংলাদেশে অহরহ এ ধরনের দুর্ঘটনা ঘটছে।

গত তিন বছরের পরিসংখ্যান বলছে, স্বাভাবিক সময়ে অন্তত চারটি অগ্নিকাণ্ড ঘটেছে। এর বাইরে ঝড় ঝঞ্ঝায় অনেক সময় আগুন লেগে গ্রিড বিকল হয়েছে। টাওয়ার পড়ে যাওয়ার মতো ঘটনাও ঘটেছে।

সম্প্রতি গ্রিড বিপর্যয়ের কারণে ময়মনসিংহ টানা কয়েক দিন বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন ছিল। পরপর দুটি অগ্নিকাণ্ড জনমনে প্রশ্নের জন্ম দিয়েছে। তবে সঠিক কারণ অনুসন্ধান এবং দায়ীদের শাস্তির কোনও নজির না থাকায় এসব থামছে না। সংশ্লিষ্টরা বলছেন, বিদ্যুৎ বিভাগের আওতাধীন সব কোম্পানিই দুর্ঘটনা এবং অনিয়মের ঘটনা ধামাচাপা দেওয়ার আপ্রাণ চেষ্টা করে থাকে। সঙ্গত কারণে গ্রিডে এভাবে অগ্নিকাণ্ডের প্রসঙ্গ আলোচনার টেবিলেই ওঠে না কখনও।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, গ্রিড সাবস্টেশন নির্মাণের পর সেগুলোর নিয়মিত রক্ষণাবেক্ষণের জন্য বরাদ্দ থাকে। কিন্তু এই বরাদ্দ সঠিকভাবে ব্যয় করা হলে এ ধরনের দুর্ঘটনা ঘটার কথা না। পৃথিবীর কোথাও বিশেষ পরিস্থিতি ছাড়াই এভাবে আপনা থেকেই ট্রান্সফরমারে আগুন ধরে যাওয়ার ঘটনা বিরল।