‘গণহত্যায় পাকিস্তান ও চীন একই কাতারে’

মানবাধিকার লঙ্ঘন এবং গণহত্যার মাত্রায় পাকিস্তান ও চীন একই কাতারে বলে মন্তব্য করেছেন সিন্ধুভিত্তিক পাকিস্তানি রাজনৈতিক সংগঠন জিয়ে সিন্ধু মুত্তাহিদা মাহজ (জেএসএমএম) এর চেয়ারম্যান শফি বুফফাত।

তিনি বলেন, পাকিস্তান সেনাবাহিনী সিন্ধু ও বেলুচিস্তানে যেভাবে সন্ত্রাসী ভাড়াটের ভূমিকা পালন করছে ঠিক তেমনই উইঘুর এবং তিব্বতীয় অঞ্চলে করছে চীন। বুফফাত অভিযোগ করেন, পাকিস্তানি গুপ্তচর সংস্থাগুলির জন্য অপহরণ বা গুম একটি সাধারণ ঘটনা। পাকিস্তানে কিছু গোষ্ঠী পরাধীনতা ও সহিংসতার শিকার হচ্ছে বেশি। তবে রাজনৈতিক কর্মীরাও রাষ্ট্রীয় নির্যাতন ও সন্ত্রাসবাদের শিকার হচ্ছে।

বুফফাত বলেন, স্বাধীনতার জন্য সিন্ধু এবং বেলুচিস্তানে চলমান রাজনৈতিক আন্দোলনকে ভেস্তে দেওয়ার জন্য সন্ত্রাসবাদী পাকিস্তান রাষ্ট্র নির্যাতন চালিয়ে আসছে। সিন্ধু ও জাতির মুক্তির জন্য তাদের কণ্ঠকে দমিয়ে রাখতে পাকিস্তানি সেনাবাহিনী নির্যাতন চালাচ্ছে।

তিনি বলেন, চীন যেমন বন্দিশিবিরে উইঘুরদের আটকে রেখে নির্যাতন চালাচ্ছে ঠিক তেমনি পাকিস্তানও সিন্ধু ও বেলুচিস্তানের জনগণের ওপর শারিরীক ও মানসিক নির্যাতন চালাচ্ছে।

সিন্ধুর এই নেতা বলেন, দশক ধরে সিন্ধু ও বেলুচিস্তানের রাজনৈতিক কর্মীরা এসব নির্যাতনের শিকার হচ্ছে। এই দুই প্রদেশের অনেক অধিবাসীকে অপহরণ ও গুম করেছে পাকিস্তানি সেনাবাহিনী এবং জঙ্গি সংগঠন ইসলামিক স্টেট (আইএস)। এসব প্রদেশের অধিবাসীদের আটকে রেখে দিনের পর দিন নির্যাতন করা হচ্ছে। অনেক রাজনৈতিক কর্মীকে হত্যা করে লাশ ফেলে দেওয়া হচ্ছে নির্জন স্থানে।