গান্ধীর চশমার বিক্রি হল আড়াই কোটি টাকায়

ভারতের স্বাধীনতা সংগ্রামের নেতা মোহনদাস করমচাঁদ গান্ধীর চশমা বিক্রি হলো আড়াই কোটি টাকায়। যুক্তরাজ্যের একজন নাগরিকের বাসার আসবাবের ড্রয়ারে প্রায় ৫০ বছর ধরে পড়ে ছিল এই চশমা। শুক্রবার তা নিলামে তোলা হলে আড়াই কোটি টাকারও (২ লাখ ৬০ হাজার পাউন্ড) বেশি দামে বিক্রি হয়।

শুক্রবার ইস্ট ব্রিস্টল অকশন নামে একটি প্রতিষ্ঠান নিলামের আয়োজন করে। টেলিফোন ছয় মিনিটের নিলামে আমেরিকান একজন সংগ্রাহক চশমা কিনে নেন। পরে রাতে ইনস্টাগ্রামে ইস্ট ব্রিস্টল অকশনসের পক্ষ থেকে লেখা হয়, ‘মাত্র চার সপ্তাহ আগেই চশমাটি আমরা আমাদের ডাকবাক্সে পেয়েছিলাম। এক ভদ্রলোক সেটি ওখানে রেখে যান। চশমাটি গান্ধী নিজে ওই ভদ্রলোকের এক আত্মীয়কে দিয়েছিলেন’।

বিবিসির খবরে বলা হয়েছে, গান্ধীর এই চশমার মালিক ছিলেন যুক্তরাজ্যের ম্যাঙ্গোসফিল্ড এলাকার একজন বয়স্ক ব্যক্তি। ১৯২০ সালের দিক থেকে চশমাটি ঐ ব্যক্তির পরিবারের কাছে ছিলো। বাসা পরিষ্কার করতে গিয়ে তা খুঁজে পাওয়ার পর নিলামে তোলার জন্য দেয়া হয়।

ধারণা করা হয়েছিল, এই চশমা সর্বোচ্চ ১৫ হাজার পাউন্ড অর্থাৎ ১৫ লাখ টাকায় বিক্রি হতে পারে। কিন্তু সেটির দাম যে এতো বেশি হবে, তা ভাবেননি বিক্রেতা। তিনি বলেন, ‘এটা খুব সহজেই চুরি হয়ে যেতে পারতো। অথবা ভেঙ্গে যেতে পারতো বা আবর্জনার বাক্সেও চলে যেতে পারতো।’

নিলামকারী অ্যান্ড্রু স্টো বলেন, ‘এর মালিক আমাকে বলেছিলেন, এটা যদি বিক্রি করা না যায়, তাহলে যেন ফেলে দেওয়া হয়। চশমার দাম সম্পর্কে তার কোন ধারণা ছিল না। যখন তাকে বলা হয় যে, এটার মূল্য হয়তো ১৫ হাজার পাউন্ড হতে পারে, তখন তার প্রায় হার্ট অ্যাটাক হতে যাচ্ছিল।’