সেপ্টেম্বরে শ্রীলঙ্কা সফরে যেতে চায় বাংলাদেশ

বহুল কাঙ্খিত শ্রীলঙ্কা সফরের বিষয়ে কিছুটা হলেও আশার আলো পাওয়া গেল। সফর আয়োজনের বিষয়ে দীর্ঘদিন ধরেই চেষ্টা করে যাচ্ছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। আনুষ্ঠানিকভাবে এখনো কোনো নিশ্চয়তা দিতে না পারলেও বিসিবির প্রধান নির্বাহী নিজামউদ্দিন চৌধুরী সুজন জানালেন, সেপ্টেম্বরের শেষ নাগাদ শ্রীলঙ্কা সফরে যেতে পারে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল।

করোনার কারণে প্রায় ৫ মাস ধরে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের বাইরে টাইগাররা। ইংল্যান্ড-ওয়েস্ট ইন্ডিজ-পাকিস্তান ক্রিকেটে ফিরলেও, বেশ ধীরগতিতেই চলছে বাংলাদেশের আলাপ। তবে বিসিবির প্রধান নির্বাহীর কথায় পাওয়া গেল আশ্বাস।

সোমবার (১০ আগস্ট) এক ভিডিও বার্তায় সুজন বলেন, শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ডের সঙ্গে আমাদের নিয়মিত যোগাযোগ হচ্ছে। প্রাথমিকভাবে কথা ছিল, আমরা ৩ টেস্টের একটা সিরিজ খেলবো। এর সঙ্গে আরও ৩টি টি-টোয়েন্টি খেলার একটা প্রস্তাব এসেছে। আমরা নিজেরা কথা বলে এ বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিবো।

তবে এখনো চূড়ান্ত হয়নি সূচি। এ বিষয়ে প্রধান নির্বাহী বলেন, দিনক্ষণ আমরা এখনও চূড়ান্ত করিনি, কোন কোন সংস্করণের খেলা হবে সেটা ঠিক হওয়ার পর আমরা দিনক্ষণ ঠিক করব।

ঈদের আগে আগেই ক্রিকেটাররা ব্যক্তিগতভাবে শুরু করেছেন অনুশীলন। ঈদের পরপরই দলগত অনুশীলনের কথা থাকলেও, সফরের বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতে না পারায় শুরু করা যায়নি সেটি। বিসিবি বলছে, সফর চূড়ান্ত হলেই শুরু হবে দলগত অনুশীলনও।

সিইও বলেন, সূচি চূড়ান্ত করার পর আমরা জাতীয় দলের ক্যাম্পের সময় ঠিক করব। আপাতত প্রাথমিকভাবে ঠিক করা আছে, সেপ্টেম্বরের শেষ দিকে শ্রীলঙ্কা সফরে গেলে এর আগে দেশে একটা ক্যাম্প আয়োজন করবো আমরা।

বিসিবির ভাবনায় আছে করোনার প্রভাবের কথাও। তাই সে বিষয়েও নেয়া হচ্ছে পদক্ষেপ।

সুজন বলেন, জাতীয় দলের সম্ভাব্য খেলোয়াড়দের একটি অ্যাপসের আওতায় নিয়ে আসা হয়েছে। কোভিড-১৯ ওয়েলবিং অ্যাপস। এর মাধ্যমে সরাসরি তাদের স্বাস্থ্যের অবস্থা পর্যবেক্ষণ করছে অমাদের চিকিৎসা বিভাগ। যখনই ক্যাম্পের ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিব, আগে ওদের আইসোলেশনে নিয়ে করোনাভাইরাস পরীক্ষা করাব, এরপর আবাসিক ক্যাম্পের জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেব।

জুলাইয়ে সিরিজটি খেলার কথা থাকলেও, করোনার প্রভাবে গত জুনে বাতিল হয়ে যায় এই সফর।