ধান খেতে উদ্ধার হওয়া প্রাণীটি চিতাবাঘ নয়, চিতা বিড়ালের বাচ্চা

কুমিল্লার লাকসাম থেকে সম্প্রতি উদ্ধার হওয়া বিড়াল প্রজাতির তিনটি প্রাণীর ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়। উদ্ধারের পর স্থানীয়রা এবং গত দুদিনে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অনেকেই এটিকে “চিতাবাঘের বাচ্চা” বলেন চিহ্নিত করেন। কিন্তু বন বিভাগের একজন কর্মকর্তা বলছেন, বাচ্চা তিনটি চিতা বাঘের নয়, কাছাকাছি বৈশিষ্ট্যের আরেকটি প্রাণী চিতা বিড়ালের।

ধানক্ষেত থেকে উদ্ধারের পর লাকসাম থানার দায়িত্বে থাকা ওই বাচ্চা তিনটিকে মঙ্গলবার (১২ মে) দুপুরে কুমিল্লা বিভাগীয় বন বিভাগে হস্তান্তর করা হয়।

এর আগে সোমবার (১১ মে) বাচ্চা তিনটিকে “চিতাবাঘের বাচ্চা” বলে ফেসবুকে প্রচার করা হলে বিষয়টি ব্যাপক আলোচনা জন্ম দেয়। দেশের বেশকিছু গণমাধ্যম সেটিকে “চিতাবাঘের বাচ্চা” বলে খবরও প্রকাশ করে।

আর মঙ্গলবার কুমিল্লা বিভাগীয় বন কর্মকর্তা মো. নূরুল করিম শাবকগুলোকে চিতাবাঘের নয়, বরং মেছোবাঘ বা মেছোবিড়ালের বাচ্চা বলে চিহ্নিত করেন।