১২ বছর পর শহিদের সঙ্গে বিচ্ছেদ নিয়ে মুখ খুললেন কারিনা

২০০৭ সালে মুক্তি পায় ‘জাব উই মেট’। যে ছবির অর্থ ‘যখন আমাদের দেখা হয়’। কিন্তু এ ছবির পরপরই তাদের দেখা-সাক্ষাৎ বন্ধ হয়ে যায়! বাস্তব জীবনের প্রেমিক-প্রেমিকা ইতি টানেন তাদের সম্পর্কের। এরপর থেকেই মুখে কুলুপ।

প্রায় একযুগ পর এবার সেই সম্পর্ক ও শহিদ কাপুর প্রসঙ্গে মিডিয়ায় মুখ খুললেন কারিনা। পাশাপাশি জানালেন, শহিদের পর তার জীবনে সাইফের আগমনের কথাও।

‘‘ছবি দুটির কাজ পর পর হয়েছিল। আমি সেই সময়টাতে অনেক কিছু পরিবর্তন করি। জিরো ফিগার, বিকিনি- এগুলো সবই আমার ক্যারিয়ারে আসে। ‌‘তাশান’ ছবিতে আমাকে এভাবেই পাওয়া যায়। এখানেই অন্যরকমভাবে পাই সাইফকে। আর ‘জাব উই মেট’ ছবির বিষয়ে শহিদই আমাকে বলে। সে বলে, এটা অসাধারণ চরিত্র। বিশেষ করে মেয়ের চরিত্রটা খুবই ভালো। তোমার এটা করা উচিত।’’ বলছিলেন এই বলিউড ডিভা।

২০০৭ সালে ‘জাব উই মেট’ ও ২০০৮ সালে ‘তাশান’ চলচ্চিত্র মুক্তি পায়। এ দুটি ছবি তার ব্যক্তিগত জীবনে কীভাবে প্রভাব ফেলেছিল- সে প্রসঙ্গে এই তারকা বলেন, ‘‘অবশ্যই এ দুটি ছবি আমার জীবনে বড় পরিবর্তন ঘটায়। ‘জাব উই মেট’-এ দেখানো হয় আমাদের প্রত্যেকেরই আলাদা গন্তব্য বা ধরন আছে। বাস্তবেও আমরা আলাদা হয়ে যাই। এরপরই ‘তাশান’-এর মাধ্যমে সাইফের সঙ্গে আমার ঘনিষ্ঠতা।

‘জাব উই মেট’ আমার ক্যারিয়ার বদলে দিয়েছে আর ‘তাশান’ আমার জীবন বদলে দিয়েছে। আমি যে পুরুষকে চাচ্ছিলাম, তাকে খুঁজে পাই। এবং তাকেই বিয়ে করি।’’
শহিদ ও কারিনা- দুজনই এখন সংসার জীবনে ব্যস্ত। কারিনা বিয়ে করেছেন সাইফ আলি খানকে আর শহিদ মিরা রাজপুতকে। দুজনের ঘর আলো করেই এসেছে তাদের সন্তান।