স্কোয়াডে থাকলেও তিনি খেলবেন না: ডোমিঙ্গো

বাংলাদেশের অন্যতম পেসার মুস্তাফিজুর রহমান নেই নিজের সেরা ছন্দে, বিশেষ করে লাল বলে পারফরম্যান্সটা যেন আরও বিবর্ণ। পাকিস্তানের বিপক্ষে রাওয়ালপিন্ডি টেস্টের আগেই বাদ দেওয়া হয় তাকে। কারণ হিসেবে নির্বাচকরা বলেছিলেন সাম্প্রতিক পারফরম্যান্স বিবেচনায় রাখা হয়নি তাকে।

তবে টাইগারদের প্রধান কোচ রাসেল ডোমিঙ্গোও বলেছিলেন মূলত এই মুহূর্তে লাল বলে বিবেচনায় রাখছেন না মুস্তাফিজকে, কাজ করতে কিছু টেকনিক্যাল বিষয় নিয়ে।

এদিকে সপ্তাহ দুয়েকের ব্যবধানেই ফের ঘরের মাঠে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে একমাত্র টেস্টের স্কোয়াডে মুস্তাফিজ। মাত্র ১৩-১৪ দিনের ব্যবধানে কি এমন পরিবর্তন হয়েছে যে আবারও দলে রাখা হয়েছে বাঁহাতি এই পেসারকে? এমন প্রশ্নে প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নু জানিয়েছেন বিসিএলে পুরোনো মুস্তাফিজকে দেখেই আবারও বিবেচনা করেছেন আর সেটা কোচের সাথে আলোচনা করেই। আর এমন ব্যাখ্যার পর মুস্তাফিজ নিয়ে তৈরি হয় ঘোলাটে পরিস্থিতি।

আজ শুক্রবার জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ম্যাচ পূর্ববর্তী সংবাদ সম্মেলনে বিষয়োটা খোলাসা করেছেন প্রধান কোচ নিজেই। সাফ জানিয়ে দিয়েছেন মুস্তাফিজ ইস্যুতে আছেন আগের অবস্থানেই। কাজ করতে হবে টেকনিক্যালি, এমনকি নিশ্চিত করে দিয়েছেন জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে খেলছেন না বাঁহাতি এই পেসার। কেবল নতুন বোলিং কোচ ওটিস গিবসনের অধীনে কাজ করার জন্যই দলের সাথে রাখা হয়েছে তাকে।

এ ব্যাপারে ডোমিঙ্গো বলেন, ‘আমি মনে করিনা মুস্তাফিজ এখনো টেস্ট খেলার জন্য প্রস্তুত। তাকে স্কোয়াডে রাখা হয়েছে আমাদের নতুন বোলিং কোচের সাথে যেন টেকনিক্যাল বিষয়ে কাজ করার জন্য সময় ব্যয় করতে পারে। তাকে খেলানোর জন্য স্কোয়াডে ফেরানো হয়নি। তাকে ট্রেইন করা, একটা শেপে আনার জন্যই দলের সাথে রাখা।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমি মিডিয়াকে নিশ্চিত করে দিচ্ছি মুস্তাফিজ খেলছেনা। আগামী ৫ দিন সে দলের সাথে থেকে বোলিং নিয়ে কাজ করবে কীভাবে টেস্ট ক্রিকেটে আবারও ফিরে আসা যায় এ নিয়ে। এই মুহূর্তে আমি বলছি সে টেস্ট খেলার অবস্থায় নেই, তাকে টেকনিক্যালি কিছু কাজ করতে হবে। এটা একটা ভুল বোঝাবুঝি হতে পারে, সে খেলবেনা।’