বোর্ড প্রেসিডেন্ট খুব আবেগপ্রবণ: ডমিঙ্গো

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে একমাত্র টেস্ট খেলতে আগামীকাল শনিবার শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে মাঠে নামছে বাংলাদেশ। ম্যাচটি শুরু হবে সকাল ৯ টা ৩০ মিনিটে।

এদিকে বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান সরাসরিই বলেছেন, জাতীয় দলের একাদশ, ব্যাটিং অর্ডার থেকে শুরু করে সব খুঁটিনাটি আগের দিনই তাকে জানাতে হবে। এ নিয়ে অধিনায়ক কিংবা ক্রিকেটারদের তো আর কিছু বলার উপায় নেই। তবে কোচ রাসেল ডমিঙ্গোর ধাক্কা খাওয়াটা স্বাভাবিক। কিন্তু দক্ষিণ আফ্রিকান হবার কারণে ব্যাপারটি নাকি মোটেও অপ্রত্যাশিত নয় তার কাছে!

আজ শনিবার সংবাদ সম্মেলনে ডমিঙ্গো বলেন, ‘মনে রাখবেন, আমি দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে এসেছি। আমি ইংল্যান্ড বা অস্ট্রেলিয়া থেকে নয়, যেখানে নিজের মতো কাজ করা সহজ। দক্ষিণ আফ্রিকায় অনেক সমস্যা; সেখানেও দল নির্বাচন সহজ নয়। অনেক লোকের অনেক মত, অনেক অগ্রাধিকার। তার সঙ্গে মানিয়ে চলা আমার কাজের অংশ। সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হলো, অধিনায়ক ও ক্রিকেটারদের এসব থকে দূরে রাখা। পুরো ব্যাপারটায় আমাকে মধ্যস্থতাকারী হিসেবে থাকতে হবে। দক্ষিণ আফ্রিকায় তা পালন করেছি; এখানেও ভিন্ন কিছু নয়।’

এ সময় বিসিবি সভাপতির সঙ্গে এ প্রসঙ্গে কথা হয়নি বলেও দাবি করে তিনি বলেন, ‘বোর্ড প্রেসিডেন্টের সঙ্গে আমার বোঝাপড়ায় বুঝেছি, দল তিনি খুব আবেগপ্রবণ। খুব করে চান, দল ভালো করুক। আমি দল নিয়ে তার সঙ্গে এখনো কোনো কথা বলিনি।’

ডমিঙ্গো আরও বলেন, ‘দেখুন, আমাকে কেউ এখনো আনুষ্ঠানিকভাবে বলেনি যে, কাউকে দল সম্পর্কে কিছু বলতে হবে। আমার তা করতে হবে বলে মনে হচ্ছে না। আগে যা বললাম, জানি যে, দল নিয়ে বোর্ড প্রেসিডেন্টের আবেগ খুব বেশি। দল ভালো করুক, তিনি খুব করে চান। আমিও চাই। তবে আমাকে বেতন দেয়া হয় এসব সিদ্ধান্ত নেবার জন্য, নিজের কাজ করার জন্য। সেটি আমি করব।’