ভারতীয়রা পূজা করেন, গোহ’ত্যা বি’রোধী তাই আমরা করোনায় আক্রা’ন্ত হবোনা: হিন্দু মহাসভা প্রধান

প্রা’নঘাতি করোনা ভাইরাস নিয়ে একের পর এক আজব তত্ত্ব দিয়ে যাচ্ছে ভারতের হিন্দু মহাসভা। কয়েক দিন আগেই হিন্দু মহাসভার সর্বভারতীয় সভাপতি চক্রপাণি বলেছিলেন, গরুর গোবর গায়ে মাখলে ও গোমূত্র খেলেই করোনাভাইরাস সেরে যাবে। যা নিয়ে তীব্র হাস্যরস সৃষ্টি হয়েছিল। এবার তিনি বললেন, ‘করোনাভাইরাস আসলে ভগবানের অবতার। আমিষাশীদের শা’স্তি দিতে ও ক্ষুদ্র প্রাণিদের রক্ষার্থেই এই ভাইরাসের পৃথিবীতে আগমন।শুধু তাই নয়, চিনে করোনাভাইরাসের ম’হামারি এড়াতে করোনা ‘অবতারের’ মূর্তি গড়ে ক্ষমা প্রার্থনারও পরামর্শ দিলেন হিন্দু মহাসভার প্রধান।’

তিনি আরও বলেন, ‘করোনাভাইরাস পৃথিবীতে এসেছে কিছু বার্তা দিতে। যারা পৃথিবীর ক্ষুদ্র প্রাণগুলোকে মে’রে খেয়ে ফেলছে, তাদের মৃ’ত্যুর মতো চরম শা’স্তি দিতেই করোনাভাইরাস পৃথিবীতে এসেছে। ভগবান নরসিংহ অবতার হয়ে এসেছিলেন রা’ক্ষসদের ধ্বং’স করতে ও শিক্ষা দিতে। চীনাদের এর থেকে শিক্ষা নেওয়া উচিৎ।’

হিন্দু মহাসভা প্রধানের এ মন্তব্য নতুন করে বি’তর্কের সৃষ্টি করেছে। আমিষাশীরাই যে হিন্দু মহাসভা প্রধানের টা’র্গেট, সেটাও তার মন্তব্যে স্পষ্ট বলে মত অনেকের।

তবে ভারতে এ ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার কোনো আ’শঙ্কা দেখছেন না স্বামী চক্রপাণি। তিনি বলেন, ‘ভারতীয়রা পূজা করেন, গোহত্যা বিরোধী। ফলে নিজের থেকেই ভারতীয়দের শরীরে একটি স্বয়ং প্র’তিরোধ শক্তি গড়ে উঠেছে।’