বান্ধবিকে নিয়ে জুনিয়র ছাত্রকে মারধর করলেন জাবি ছাত্রলীগের নেতা

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) এক শিক্ষার্থীকে মারধরের অভিযোগ উঠেছে বিশ্ববিদ্যালয়ের শাখা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি ও তার বান্ধবীর বিরুদ্ধে। রবিবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) জাবির কেন্দ্রীয় ক্যাফেটেরিয়ায় এ ঘটনা ঘটে।

ভুক্তভোগী ওই শিক্ষার্থীর নাম আদনান সাকিব। তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের বঙ্গবন্ধু তুলনামূলক সাহিত্য ও সংস্কৃতি ইন্সটিটিউটের ৪৮তম ব্যাচ এবং এএফএম কামালউদ্দিন হলের ছাত্র।

অভিযুক্ত ছাত্রলীগ নেতা শামিম শিকদার বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক সম্পর্ক (আইআর) বিভাগের ৪০তম ব্যাচের ছাত্র। তিনি শাখা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

অভিযোগ উঠেছে, শামীমের রোজা নামের তার বান্ধবীকে নিয়ে ওই শিক্ষার্থীকে মারধর করেন। রোজা সরকার ও রাজনীতি বিভাগের ৪৩ ব্যাচের ছাত্রী।

এ বিষয়ে আদনান বলেন, “আমি আমার এক বান্ধবীর সঙ্গে ক্যাফেটেরিয়ায় পড়াশোনা করছিলাম। এসময় ফ্যানের সুইচ দেওয়া নিয়ে তার (শামিমের) সঙ্গে ঝগড়া হয়। এক পর্যায়ে তিনি আমার পরিচয় জানতে চান। পরিচয়ে নিজেকে ফ্রেশার হিসেবে জানালে, তিনি আমাকে এলোপাথাড়ি চড় মারতে থাকেন। এ সময় আমার বান্ধবী আমাকে সাহায্য করতে এগিয়ে আসলে শামীম তার শরীরেও আঘাত করেন। আমি এই ঘটনার সুষ্ঠু বিচার চাই।”

মারধরের পর অসুস্থ হয়ে পড়লে আদনানকে তার সহপাঠীরা বিশ্ববিদ্যালয়ের মেডিকেল সেন্টারে ভর্তি করেন।

এ বিষয়ে কথা বলতে শামিম শিকদারের সঙ্গে ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তাকে পাওয়া যায়নি।

এদিকে এ ঘটনার পর মারধরের শিকার আদনান বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর এএসএম ফিরোজ-উল-হাসানের কাছে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন বলে জানা গেছে।

অভিযোগপত্র পাওয়ার পর প্রক্টর এএসএম ফিরোজ-উল-হাসান বলেন, “আমি অভিযোগপত্র পেয়েছি। বিষয়টি নিয়ে সুষ্ঠু বিচার করা হবে, যেন ভবিষ্যতে এমন ঘটনা ঘটানোর সাহস কেউ না পায়।” ঢাকা ট্রিবিউন