মস‌জি‌দের দানবা‌ক্সে মিললো দেড় কোটি টাকা

কিশোরগঞ্জ জেলা সদ‌রে অব‌স্থিত ঐতিহাসিক পাগলা মসজিদের দানবাক্সে পাওয়া গেল নগদ ১ কোটি ৫০ লাখ ১৮ হাজার ৪৯৮ টাকা। এ ছাড়াও বেশ কিছু বি‌দে‌শি মুদ্রা ও স্বর্ণালংকার।

সিন্দুকগু‌লো খুলে টাকা প্রথমে বস্তায় ভরা হয়। এরপর মেঝেতে ঢেলে শুরু হয় গণনার কাজ। বিকেল ৪টায় গণনা শেষে দানের এ টাকার হিসাব পাওয়া যায়।

কিশোরগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ গোলাম মোস্তফা ও পাগলা মসজিদ কমিটির সম্পাদক পৌর মেয়র মাহমুদ পারভেজের তত্ত্বাবধানে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ফজলে রাব্বি, মাহামুদুল হাসান, উবায়দুর রহমান সাহেল, পাগলা মসজিদের প্রশাসনিক কর্মকর্তা মুক্তিযোদ্ধা শওকত উদ্দিন ভূঁইয়া ও রূপালী ব্যাংক কিশোরগঞ্জ শাখার কর্মকর্তারা টাকা গণনার কাজ তদারকি করেন।

জানা যায়, কিশোরগঞ্জ শহরের হারুয়া এলাকায় নরসুন্দা নদীর তীরে ঐতিহাসিক পাগলা মসজিদের অবস্থান। এখানে ইবাদত বন্দেগি করলে বেশি সওয়াব পাওয়া যায় বলে মানুষের বিশ্বাস। রোগ-শোক বা বিপদে মসজিদে মানত করলে মনের বাসনা পূর্ণ হয়। এসব বিশ্বাস থেকে এখানে প্রতিনিয়ত দান খয়রাত করে মানুষ। তিন মাস পর পর খোলা হয় মসজিদের দানবাক্স। প্রতিবারই টাকার পরিমাণ ছাড়িয়ে যায় কোটি টাকা। নানা শ্রেণিপেশা আর ধর্মের লোকজন এখানে আসেন মানত আদায় করতে।