সাকিবের মতো ছেটে ফেলা হচ্ছে মুশফিককেও

পাকিস্তানের বিপক্ষে প্রথম টেস্টে রাওয়ালপিন্ডিতে লজ্জাজনকভাবে ইনিংস হেরেছে টাইগাররা। গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যায় পাকিস্তান থেকে দেশে ফিরেছেন অধিনায়ক মুমিনুল-তামিমসহ টেস্ট স্কোয়াডের ১১ ক্রিকেটার।

চলতি পাকিস্তান সফরে যাওয়া না যাওয়ার সিদ্ধান্তটি ক্রিকেটারদের ওপর ছেড়ে দিয়েছিল বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। এতে পরিবারের শঙ্কার কথা চিন্তা করে সিরিজ থেকে নিজের নাম প্রত্যাহার করে নেন মুশফিকুর রহিম। শোনা যাচ্ছে, এই কারণে আসন্ন জিম্বাবুয়ে সিরিজের দলে নাও রাখা হতে পারে মুশফিককে।

তবে একমাত্র ক্রিকেটার হিসেবে পাকিস্তান সফর থেকে নিজের নাম প্রত্যাহার করে নিয়েছেন মুশফিক। বিষয়টা মোটেও পছন্দ হয়নি বিসিবির। সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন সরাসরিই তার অসন্তুষ্ঠির কথা জানিয়েছেন।

এদিকে আসন্ন জিম্বাবুয়ে সিরিজে মুশফিককে নেওয়া হবে কি হবে না সেই চিন্তাও যে করা হচ্ছে তাও খোলাসা করেন বিসিবি প্রধান। পাকিস্তান থেকে টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলে ফিরে তিনি বলেন, ‘মুশফিক বলল পাকিস্তান যাবে না। এখন সামনের টেস্টে নতুন কাউকে নিলাম। জিম্বাবুয়ের সাথে আবার মুশফিক খেলবে। এরপর পাকিস্তানের বিপক্ষে পরের টেস্টের জন্য আবার বদল। প্রতি খেলার আগে পরিবর্তন করা খুব কঠিন।’

এদিকে প্রধান কোচ রাসেল ডমিঙ্গোও পাপনের কথায় সুর মিলিয়ে বলেন, ‘পাকিস্তান থেকে ফেরার পর আমরা মূল্যায়ন করব। মনে রাখতে হবে, সর্বশেষ টেস্ট সিরিজে মুশফিক রান পেয়েছে। একই সঙ্গে এটিও বিবেচনায় রাখতে হবে যে, একটি ব্যাটিং লাইনআপ বেছে নেওয়া, এক টেস্ট পর তা বদলানো, পরে তৃতীয় টেস্টের জন্য আরেক দফায় পরিবর্তন করাটা কঠিন। আমি ছেলেদের টানা খেলাতে চাই।’

এদিকে কোচের ‘ছেলেদের টানা খেলাতে চাই’ কথার সঙ্গে একমত বিসিবির প্রভাবশালী বেশ কয়েকজন পরিচালকও। সব মিলিয়ে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে একমাত্র টেস্টের দলে মুশফিককে না দেখতে পাবার সম্ভাবনা ভালোভাবেই জেগেছে।