বিসিবি’র পথে বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা, মিরপুরে জনস্রোত

অবশেষে বিশ্বকাপ জয় করে বীরের বেশে দেশে ফিরেছে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দলের সদস্যরা। বিকেল পৌনে ৫টায় বিশ্বকাপের ট্রফি নিয়ে শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করেন আকবর-তৌহিদ হৃদয়রা। বিমানবন্দরে বিশ্বজয়ীদের ফুলের মালা ও মিষ্টি দিয়ে বরণ করে নিয়েছে বিসিবির সভাপতিসহ কর্মকর্তারা।

এদিকে বিমানবন্দরে আগে থেকেই অপেক্ষায় ছিলেন বিসিবির সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন, যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী মো. জাহিদ আহসান রাসেল, আকরাম খানসহ বিসিবির কর্মকর্তারা। বিমান থেকে নামার পর বিশ্বকাপ জিতে ইতিহাস গড়া ক্রিকেটারদের একে একে ফুলের মালা পরিয়ে দেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী মো. জাহিদ আহসান রাসেল। বিশ্বজয়ের উচ্ছ্বাস দেখা যাচ্ছিল ক্রিকেটারদের চোখেমুখেও।

এদিকে বড় আয়োজনে কোন ছাড় দেয়নি বিসিবি, ক্রিকেটারদের নিয়ে নিজস্ব প্রোটোকলে নিয়ে যাওয়া হয় বিসিবি কার্যালয়ে। সন্ধ্যা ৫ টা ৫০ মিনিটে আকবরদের বহনকারী বিসিবির নিজস্ব বাস বিমানবন্দর ছেড়ে যায়। সেখানেই অপেক্ষায় হাজার হাজার ভক্ত সমর্থক।

আকবরদের বিমানবন্দরে পৌঁছানোর আগেই মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামের মূল ফতক পরিণত হয় জনস্রোতে। মিরপুরে বিসিবি কার্যালয়ে দুইদিন আগে থেকেই সাজ-সাজ রব উঠতে শুরু করে।

টাইগার যুবাদের ছবি সম্বলিত ব্যানার, ফেস্টুনে ভরে যায় বিসিবি কার্যালয়ের ভবন। গতকাল সন্ধ্যা থেকেই মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামের সামনে অংশে দেখা যায় আলোকসজ্জা।

এদিকে আগেই জানানো হয়েছিল বিসিবিতে আকবরদের জন্য থাকছে নানা আয়োজন, বিসিবিতে ডিনার, সংবাদ সম্মেলন শেষেই ঘরে ফিরবে পুরো জাতিকে এক সুতোয় গেঁথে দেওয়ার উপলক্ষ্য তৈরি করা শামীম, তৌহিদ, সাকিব, তামিম, রাকিবুলরা। ঢাকার বাইরের ক্রিকেটাররা রাত কাটাবেন বিসিবিতে, ঢাকার ভেতরের ক্রিকেটাররা রাতেই ফিরে যাবেন পরিবারের কাছে।