জীবন বাঁচাতে চুল কেটে ন্যাড়া হচ্ছেন চীনা নার্সরা

প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসে আক্রান্তদের চিকিৎসায় দিনরাত এক করে ডাক্তারদের পাশাপাশি সেবা দিয়ে যাচ্ছেন নার্সরা। এজন্য দীর্ঘ সময় ধরে তাদের মাস্কসহ অন্যান্য সুরক্ষা সামগ্রী পরিধান করে থাকতে হচ্ছে।

ভালোভাবে চিকিৎসা সেবা দেওয়ার জন্য নারী সেবিকারা নিজেদের মাথার লম্বা চুল কেটে ফেলে দিচ্ছেন। বিশেষ করে উহানের নারী সেবিকারা ন্যাড়া হচ্ছেন বলে জানা গেছে। সুরক্ষা সামগ্রী ভালোভাবে যেন ব্যবহার করা যায় এবং নিজেদের মাধ্যমে করোনাভাইরাস না ছড়ায়, সেজন্য তারা চুল কেটে ফেলছেন।

এদিকে চুল ন্যাড়া করার পেছনে সেবিকারা কারণ হিসেবে বলছেন, মাথা ন্যাড়া করে ফেলার ফলে সংক্রমণের ঝুঁকি কিছুটা হলেও কমছে। স্বল্প সময়ে চিকিৎসা দেওয়ার জন্য পোশাক পরে প্রস্তুত হওয়া যাচ্ছে এবং এই কঠিন মুহূর্তে চুলের বাড়তি যত্ন নিতে হচ্ছে না।

এদিকে চীনে সেবিকাদের কাছে এখন প্রতিটি মুহূর্তের মূল্য অনেক বেশি। সে কারণে চুল কেটে ফেলে হলেও কিছুটা সময় হাতে পাওয়া যাচ্ছে।

তাছাড়া চুল না থাকার ফলে সুরক্ষার জন্য পরিধান করা পোশাক অনেক ভালোভাবে ত্বকের সংস্পর্শে আসছে। নারীদের লম্বা চুল থাকার কারণে কিছুটা সমস্যা হয়। সে কারণে ন্যাড়া করে হলেও সেবিকারা করোনাভাইরাসের বাহক হিসেবে ঝুঁকিতে অন্তত চুল রাখতে চাচ্ছেন না; সে কারণে ন্যাড়া হয়ে যাচ্ছেন।

এদিকে চিকিৎসা সেবায় নিয়োজিতরা যে ধরনের ত্যাগ স্বীকার করেছেন এই দুঃসময়ে, চুল ছেঁটে ফেলাটা তারই অংশ। আজ মঙ্গলবার ডেইলি চায়নার অনলাইনে ভিডিওটি পোস্ট করার পর সেবিকাদের প্রশংসায় ভাসিয়ে দিচ্ছেন নেটিজেনরা।

এখন পর্যন্ত করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে এক হাজার ১৬ জন মারা গেছেন এবং ৪৩ হাজারের বেশি মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন।