সা’ঈদীর ভক্ত মানেই জামাত-শি’বির নয়,আমিও মিজানুর রহমান আজহারীর ভক্ত

মিজানুর রহমান আজহারি বর্তমানে যুবকদের আইডল বলা হলেও দেশে বিদেশে এখন মিজানুর রহমানের ওয়াজ নিয়মিত শুনেন সব বয়সের মানুষ। দেশব্যাপী ছড়িয়ে পড়েছে তার অসংখ্য গুণগ্রাহী । এবার জোরারগঞ্জ থানার সাবেক পু’লিশ অফিসার ওসি লিয়াকত আলী ফেসবুকে মিজানুর রহমানকে নিয়ে একটি স্টেটাস লিখেছেন । নিচে স্টেটাসটি হবহু তুলে ধরা হলোঃ

” আমি মনে করি সা’ঈদীর ভ’ক্ত মানেই জা’মাত-শি’বির নয়। কারন সাঈদী কো’রান তাফসির করার মাধ্যমে পরিচিতি পাওয়ার অনেক পরে প্র’কাশ্যে রা’জনীতি শুরু করেন।

প্রসঙ্গ :- বর্তমানে বহুল আলোচিত ও স’মালোচিত মাওলানা মিজানুর রহমান আযহারী। ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতা :- সাঈদীর যেদিন ফাঁ’সির আদেশ হয় সেদিন আমি দেশের অতি গু’রুত্বপূর্ণ থানা চট্টগ্রামের হাটহাজারী মডেল থানার ওসি ছিলাম। ১১৭ জন মানুষের সেদিন প্রা’নহানী হয়েছিল।

যাদের কাছে তার যু’দ্ধপরাধের চেয়ে কো’রানের তাফসির করার দক্ষতা ছিল অনেক বেশী গুরুত্বপূর্ণ ও মূল্যবান। যাদের সবাই জামাত-শিবিরের লোক ছিলেন না। স্বাধীনতার পর দেশব্যাপী এতটা স’হিংসতা ও এত অধিক সংখ্যক মানুষের প্রা’নহানী একদিনে কখনও ঘটে নাই।

আমি দেখেছি অনেক ক’ট্টর আওয়ামী লীগারও সেদিন ম’র্মাহত হয়েছেন। আমি সেদিন তাদের এই ইমোশন কে প্রফেশনাল হিসাবে নিয়ে আইন-শৃং’খলা নি’য়ন্ত্রনে রাখতে সক্ষম হয়েছি। আ’ল্লাহর অসীম রহমতে সেদিন হাটহাজারীর মত একটা ক’ট্টর ই’সলামী এলাকায় একটিও প্রা’নহানী ঘটে নাই। Please don’t misunderstand me.

আমি সাঈদী ভ’ক্ত নই। তাকে পছন্দ বা অপছন্দ – কোনো টাই আমি করি না। তাকে নিয়া আমার একটুও মাথা ব্য’থা নাই। আমার দীর্ঘ জীবনে উনার একটাও বয়ান আমি আজ পর্যন্ত শুনি নাই।

কিন্তু আমি মিজানুর রহমান আযহারীকে পছন্দ করি – তার বয়ান নিয়মিত শুনি। জানিনা মহান আ’ল্লাহ তার উসিলায় আমাকে হেদায়েত করেন কিনা। Liaquat_Ali সাবেক পু’লিশ অফিসার জোরারগঞ্জ থানা।