আবরার হ’ত্যাকা’ন্ডে অ’ভিযুক্ত আ’সামির বাবা ছেলের দু’শ্চিন্তা’য় মা’রা গেলেন

বুয়েটের মেধাবী ছাত্র আবরার ফাহাদ হ’ত্যা মামলার পাঁচ নম্বর আসামি ইফতি মোশাররফ সকালের বাবা স্ট্রোক করে মা’রা গেছেন। শনিবার গভীর রাতে তার মৃ’ত্যু হয় বলে ইফতির মা রাবেয়া বেগম জানিয়েছেন।

মৃ’তের নাম ফকির মোশাররফ হোসেন (৪৫)। তার বাড়ি রাজবাড়ী পৌরসভার ১ নং ওয়ার্ডের ধুনচি গ্রামের আটাশকলোনি এলাকায়।

পরিবার সূত্রে জানা গেছে, গত ৩০ জানুয়ারি ঢাকার আদালতে ছেলে ইফতির শুনানির দিন ছিল। ওইদিন ছেলের শুনানিতে মোশাররফ হোসেন ঢাকায় গিয়েছিলেন।

ঢাকা থেকে বাড়ি ফেরার পর থেকেই ছেলের জন্য দু’শ্চিন্তা করতে থাকেন তিনি। শনিবার রাতে হঠাৎ করে স্ট্রো’ক করেন তিনি। প্রথমে তাকে রাজবাড়ী সদর হাসপাতালে নেয়া হয়।

পরে সেখান থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পথে রাত ৩টার দিকে মা’রা যান মোশাররফ।

এদিকে স্বামীর মৃ’ত্যুতে পাগলপ্রা’য় রাবেয়া বেগম। স্বামীর জন্য বিলাপ করছেন আর বলছেন, ‘ছেলে জেলে, স্বামীও চলে গেল। এখন আামি কী করব।’