করোনা ভাইরাসের ঝুঁকিতে রয়েছে ১০ লাখ বন্দি উইঘুর মুসলিম

বৃত্তিমূলক প্রশিক্ষণের নামে এই অঞ্চলটিতে ১০ লাখ উইঘুর মুসলমানকে বন্দি করে রেখেছে চীন সরকার। ইতিমধ্যে উইঘুরে পৌঁছে গেছে করোনাভাইরাস। সেখানকার স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষ বলছে, ৪৭ বছর বয়সী লি ও ৫২ বছর বয়সী গিউ নামের দুই ব্যক্তি জিনজিয়াংয়ে করোনাভাইরাসে আ’ক্রান্ত হয়েছেন।

ওই দুই ব্যক্তি হুবাইয়ের রাজধানী উহানে ভ্রমণে গিয়েছিলেন। গত ১০ জানুয়ারি উহানে প্রথম এই রোগ ধরা পড়েছে। স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষের বরাতে ওয়াল স্ট্রিট জার্নালও বলছেন, জিনজিয়াংয়ে এই ভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছে।

এই ঘটনাকে খুবই গুরুত্বের সঙ্গে দেখা হচ্ছে। যদি সেখানে এই রোগের উপদ্রব ঘটে, তবে আ’টক ১০ লাখ উইঘুর মুসলমান সবচেয়ে বেশি ঝুঁ’কিতে পড়ে যাবেন।

তাদের আটকে রাখার এসব ক্যাম্পের পরিবেশ প্রচণ্ড নোংরা। অবকাঠামো ব্যবস্থাও ভালো না। ডিট্নেশন সেন্টারগুলোতে ঠাসাঠাসি করে ব’ন্দি রাখা হয়েছে এসব মুসলমানকে।

যদি উহানের এই ভাইরাস জিনজিয়াংয়ে ছড়ায়, তবে বন্দিদের ওপর তার মারাত্মক প্রভাব পড়বে। বিশ্ব উইঘুর কংগ্রেসের সভাপতি দুলকুন ইসা বলেন, লাখ লাখ লোকের জীবন ঝুঁ’কিতে পড়ে যাবে।