মসজিদের জায়গা দখল করে টয়লেট ও সিএনজি স্ট্যান্ড

মসজিদের জায়গা দখল করে টয়লেট, যাত্রী ছাউনী ও সিএনজি স্ট্যান্ড নির্মাণের অভিযোগ উঠেছে তালোড়া পৌরসভার মেয়র ও পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি আমিরুল ইসলাম বকুলের বিরুদ্ধে। এর প্রতিবাদে গতকাল সোমবার মসজিদ কমিটির আয়োজনে মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়েছে।
তালোড়া রেলঘুমটি সংলগ্ন রেলগেট জামে মসজিদের সামনে প্রায় ঘণ্টাব্যাপী চলা মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, মসজিদ পরিচালনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক তালোড়া ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা নজরুল ইসলাম, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক মামুনুর রশিদ রাজু, তালোড়া পৌর ৩নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম নজু সহ প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, ১৯৯৭ সালে রেলের ৩০ শতক জায়গা লিজ নিয়ে তালোড়া রেলগেট জামে মসজিদ নির্মাণ করা হয়। মসজিদটি নির্মাণের পর থেকে ৫ বছর পর পর রেলওয়ের নিয়মানুসারে খাজনা পরিশোধ করে আসছে। মসজিদ সংলগ্ন পূর্ব পার্শ্বে বিশাল শৌচাগার রয়েছে। মসজিদের পূূর্ব পার্শ্বের জায়গায় অস্থায়ীভাবে দোকান বসিয়ে অনেক বেকারের কর্মসংস্থান হয়েছে। তালোড়া পৌর মেয়র তালোড়া পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি আমিরুল ইসলাম বকুল দলীয় প্রভাব বিস্তার করে সম্পূর্ণ অনিয়মতান্ত্রিক ভাবে মসজিদের লিজকৃত পূর্ব পার্শ্বের ভরাট জায়গা জোরপূর্বক দখল করে তার উপর টয়লেট, যাত্রী ছাউনী ও সিএনজি স্ট্যান্ড নির্মাণ পরিকল্পনা গ্রহণ করে কাজ শুরু করেছেন।

কোনো প্রকার আলোচনা ছাড়াই মসজিদের জায়গায় টয়লেট, যাত্রী ছাউনী ও সিএনজি স্ট্যান্ড নির্মাণের তীব্র প্রতিবাদ জানিয়ে বক্তারা তা বন্ধের দাবি জানান। অন্যথায় ধর্মপ্রাণ মুসলমান ঐক্যবদ্ধ ভাবে মসজিদের জায়গা অবৈধ দখলের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থান নিবে।

এ ব্যাপারে মেয়র আমিরুল ইসলাম বকুল জানান, তালোড়া বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের উত্তর পার্শ্বের পিছনে রেলের পরিত্যক্ত জায়গার উপর জনস্বার্থে টয়লেট, যাত্রী ছাউনী ও সিএনজি স্ট্যান্ড নির্মাণের অনুমতির জন্য গত বছর রাজশাহী রেলওয়ে চিফ এস্টেট অফিসারের নিকট লিখিতভাবে আবেদন করেন। অনুমতি পেয়ে তারা কাজ শুরু করেছেন।