পাকিস্তানে প্রথম ১২ ঘণ্টা কেমন কাটলো টাইগার্সদের

বিমানবন্দরেই উষ্ম অভ্যর্থনা জানানো হয় বাংলাদেশ ক্রিকেট দলকে। তারপর কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থার মধ্য দিয়ে বুলেট প্রুফ বাসে লাহোরের পার্ল কন্টিনেন্টাল হোটেলে নিয়ে যাওয়া হয় টাইগারদের। প্রথম রাতটা ফুরফুরে মেজাজেই কেটেছে হোটেলে।

বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের একটি সূত্র পাকিস্তান থেকে ফোনে বলেন, ‘পাকিস্তানের নিরাপত্তা ব্যবস্থা দেখে আমরা মুগ্ধ। বিমানবন্দর থেকে হোটেলে এসেছি আমরা কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থার মধ্য দিয়ে। হোটেলেও আমাদের কোনো সমস্যা হয়নি। ক্রিকেটাররাও ফুরফুরে মেজাজে আছেন।’

আজ বৃহস্পতিবার স্থানীয় সময় দুপুর ১২টায় হোটেলে টিম মিটিং করেছে বাংলাদেশ দল। তারপর সাড়ে ১২টায় গাদ্দাফি স্টেডিয়ামের উদ্দেশ্যে যাত্রা করেন ক্রিকেটাররা। ঠিক ১২টা ৫০ মিনিটে স্টেডিয়ামে দুই অধিনায়কের উপস্থিতিতে টি-২০ সিরিজের ট্রফি উন্মোচন করা হবে। দুপুর ১টায় ম্যাচপূর্ব সংবাদ সম্মেলন। বাংলাদেশ দল অনুশীলন শুরু করবে ১টা ১৫ মিনিট (বাংলাদেশ সময় ২টা ১৫ মিনিট) থেকে। এরপর ঠিক ৪টা ১৫ মিনিটে হোটেলের উদ্দেশ্যে রওনা দেবেন টাইগাররা। সন্ধ্যা ৬টায় অধিনায়ক, কোচ ও টিম ম্যানেজার মিলে সিরিজ নিয়ে আলোচনায় বসবে। এই হচ্ছে পাকিস্তানে প্রথম দিনে বাংলাদেশ দলের কর্মকাণ্ড।

জানা গেছে, নিরাপত্তা নিয়ে যে শঙ্কা বা সংশয় ছিল তা কেটে গেছে। গত রাতে এয়ারক্রাফটেই আনন্দ মুখর পরিবেশের মধ্য দিয়ে কেক কেটে মাহমুদুল্লাহ রিয়াদরা সময়টি সেলিব্রেশন করেছেন।