ধাক্কা মেরে বের করে না দেয়া পর্যন্ত অবসরে যাবেন না ধোনি

ধাক্কা মেরে জাতীয় দল থেকে বের করে না দেয়া পর্যন্ত মহেন্দ্র সিং ধোনি অবসরে যাবেন না বলে মন্তব্য করেছেন বলিউড অভিনেতা কামাল রশিদ খান। ভারতে জনপ্রিয় সোশ্যাল মিডিয়া টুইটারে ধোনিকে নিয়ে এমন মন্তব্য করেন তিনি। আর সেই মন্তব্যের জেরে টুইটারে ঝড় উঠেছে। রীতিমতো বিতর্ক শুরু হয়েছে সেখানে। অভিনেতা কামাল রশিদ খানকে এক হাত নিচ্ছেন ধোনিভক্তরা।

উল্লেখ্য, গত বছরের জুলাইয়ে ইংল্যান্ড বিশ্বকাপের পর থেকেই জাতীয় দল থেকে স্বেচ্ছায় বাইরে রয়েছেন সাবেক অধিনায়ক ধোনি। তাকে ছাড়াই দক্ষিণ আফ্রিকা, ওয়েস্ট ইন্ডিজ, বাংলাদেশ, শ্রীলংকা সিরিজের পর এখন অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে খেলছে বিরাট কোহলির দল। বৃহস্পতিবার ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ডের কেন্দ্রী চুক্তি থেকে বাদ পড়েছেন ধোনি। ২০০৪ সালে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেকের পর এই প্রথম চুক্তি থেকে বাদ পড়লেন তিনি। এরপরেও অবসর নেয়ার কোনো ঘোষণা দেননি ধোনি। তিনি আদৌ আর জাতীয় দলে খেলবেন কিনা সেটা নিয়েও অনিশ্চিয়তা কাটছে না।

এমন পরিস্থিতিতে ভারতীয় ক্রিকেটপ্রেমীরা জানতে চাইছেন, ধোনি কি জাতীয় দলে আছেন নাকি নেই? এ বিষয়ে দেশটির ক্রিকেটার থেকে শুধু করে বিশেষজ্ঞরা নিজেদের মতামত দিয়ে চলেছেন।

আর ঠিক এই সময় বলিউড অভিনেতা কামাল রশিদ খান নিজের টুইটার হ্যান্ডেলে লেখেন, ‘বোর্ড ধোনিকে ছুড়ে ফেলে দিয়েছে। এটাই নিয়ম। অতীতেও এমনটা ঘটেছে। নতুনরা এলে পুরাতনদের ঝেড়ে ফেলা হয়। কিন্তু ধোনির মুখে অবসরের নামগন্ধ নেই। তিনি এখন সেই ক্রিকেটারদের অনুসরণ করেছেন, যাদের নিয়ম ছিল, যতক্ষণ না ধাক্কা মেরে বের করবে, ততক্ষণ বেরোবে না। এটা খুবই দুঃখজনক!
এরপর সে সব ক্রিকেটারদের অনুসরণ না করে অপমানিত না হওয়ার আগে সম্মানের সহিত অবসর নিতে ধোনিকে ‘পরামর্শ’ দেন কামাল রশিদ ।