বেপরোয়া রোহিতের রিভিউ

মঙ্গলবার মুম্বাইয়ে ভারতকে বলতে গেলে দলে-পিষে ১০ উইকেটে হারিয়েছে অস্ট্রেলিয়া। ভারত নিজেরা বিব্রত, গোটা ক্রিকেট বিশ্বই চমকে গেছে- ঘরের মাঠে ভারতকে এভাবেও হারানো যায়! হ্যাঁ, ঘরের মাঠে ভারতকে হারানো কঠিন। তবুও বাস্তবতা যে অ্যারন ফিঞ্চের দল তাদের হারালো এবং বিচ্ছিরিভাবে। আরেক দিক দিয়ে যদি ভাবেন, এই অস্ট্রেলিয়াই কিন্তু প্রায় ‘অজেয়’ হয়ে ওঠা ভারতকে পিছিয়ে পড়েও হারিয়ে গেছে মাত্রই আগের দ্বিপক্ষীয় সিরিজটিতে।

রাজকোটে তাই বিরাট চ্যালেঞ্জ বিরাট কোহলির দলের। একে তো সিরিজটা বাঁচিয়ে রাখতে জিততেই হবে, তার ওপর অস্ট্রেলিয়ার কাছে টানা পাঁচ ম্যাচ হারের লজ্জাটাকে রুখতে হবে।

টসে হারা ভারত ব্যাটিং পেয়ে শুরুটা দুর্দান্তই করেছে। সতর্ক অথচ আক্রমণাত্মক ব্যাটিংয়ে রোহিত শর্মা ও শিখর ধাওয়ান ওপেনিংয়ে গড়েছেন ৮১ রানের জুটি। জুটিটা আরও লম্বা হবে বলেই মনে হচ্ছিল, কিন্তু হঠাৎই অ্যাডাম জাম্পার লেগ ব্রেকে এলবিডাব্লিউ হয়ে যান। ৪২ রানে আউট হওয়ার আগে খামোখাই রিভিউটা নষ্ট করে গেছেন ‘হিটম্যান’।

আর মাত্র ৪ করতে পারলে ওয়ানডেতে ৯ হাজার রান পূর্ণ হতো রোহিতের। আর সেটি হলে ওয়ানডে ক্রিকেটের তিন কিংবদন্তি সৌরভ গাঙ্গুলী (২২৮ ইনিংস), শচীন টেন্ডুলকার (২৩৫ ইনিংস) ও ব্রায়ান লারাকে (২৩৯ ইনিংস) পেছনে ফেলতেন। হতেন ওয়ানডেতে তৃতীয় দ্রুততম সময়ে ৯ হাজার রান সংগ্রাহক। অবশ্য সেই সুযোগ তার এখনও আছে। ৯ হাজার ওয়ানডে রান সংগ্রহের বেলায় রোহিতের ওপরে আছেন দুজন- এবি ডি ভিলিয়ার্স (২০৫ ইনিংস) ও তার অধিনায়ক বিরাট কোহলি (১৯৪ ইনিংস)। ২১৫ ইনিংসে ৮ হাজার ৯৫৪ রান নিয়ে খেলতে নামা রোহিত আউট হয়ে গেলেন ৮ হাজার ৯৯৬ রানে।