মোদির কথার প্রতিবাদে হিজাব পড়েই মুসলিমদের বিক্ষো’ভে হিন্দু নারী

সম্প্রতি দিল্লির জামিয়া মিলিয়া মুসলিম বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রদের ওপরে পুলিশের ব্যাপক মারধরের পরে সারা দেশের ছাত্রছাত্রীরা যেন আরও ক্ষুব্ধ হয়ে উঠছেন। প্রায় তিন সপ্তাহ ধরে আন্দোলনে দেখা যাচ্ছে কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীদের।

তবে ছাত্রছাত্রীদের এই বিক্ষো’ভে বেশ কয়েকটি প্রতিবাদী মুখ নিয়ে সবচেয়ে বেশী আলোচনা হচ্ছে। এদের মধ্যে তিনজন তরুনীকে বেশী দেখা গেছে। ঘটনাচক্রে তিনজনই ছাত্রী – এবং তিনজনের সঙ্গেই কোনও রাজনৈতিক দলের কোনও যোগাযোগ আগেও ছিল না, এখনও নেই। এই তিনজনের মধ্যে সবথেকে কম বয়সী কেরালার এর্নাকুলামের আইন প্রথম বর্ষের ছাত্রী ইন্দুলেখা পর্থান।

ইন্দুলেখা সংবাদমাধ্যমকে বলছিলেন, “আমি কোনদিন কোনও রাজনীতি বা প্রতিবাদে যাই নি এর আগে। সেদিন কলেজের সিনিয়ররা ক্লাসে এসে জানায় যে নাগরিকত্ব সংশোধনীর বিরুদ্ধে প্রতিবাদ হবে ছাত্রছাত্রীদের। প্রতিবাদের ধরণ নিয়ে কারও কোনও আইডিয়া আছে কী না। তার আগেই প্রধানমন্ত্রী বলেছিলেন, যারা অশান্তি ছড়াচ্ছে, তাদের পোশাক দেখেই চেনা যায় কারা এর পিছনে আছে। ওই কথাটা মাথায় এসেছিল হঠাৎ।”

ইন্দুলেখা হিজাব পড়েই সেদিন ছাত্রছাত্রীদের প্রতিবাদী মিছিলে যোগ দিয়েছিলেন। হাতের একটা প্ল্যাকার্ডে লেখা ছিল, “মি. মোদী আমি ইন্দুলেখা। আমার পোশাক দেখে আমাকে শনাক্ত করুন।”