বিপিএলের ঢাকা পর্ব শেষে বেশী গুরুত্ব পাচ্ছে যেসব ক্রিকেটাররা

বিপিএল মানেই চার-ছক্কার বৃষ্টি। বিপিএল মানেই জমজমাট লড়াই। ঢাকার প্রথম পর্ব শেষ করলো বঙ্গবন্ধু বিপিএলের সপ্তম আসর। পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে রাজশাহী রয়েলস। এবারের বিপিএলে বিদেশি বড় তারকা কমই এসেছেন বিপিএলের এবারের আসরে। ফলেই গুরুত্ব পাচ্ছেন স্থানীয় ক্রিকেটাররা।

সাম্প্রতিক সময়ে নিয়মিত বোলিং করছেন সৌম্য সরকার। এই তরুণ ক্রমেই হয়ে উঠছেন পেস বোলিং অলরাউন্ডার। এখন পর্যন্ত নিয়েছেন ৪ উইকেট।

নাসির হোসেন, সাব্বির হোসেন সংগ্রাম করছেন নিজেদের ফিরে পেতে। তবে পর্যন্ত আলোর রেখা দেখা যায়নি দুই তরুণের ব্যাটিংয়ে। ভুগছেন মুস্তাফিজুর রহমানও। বাঁহাতি এই পেসারের বোলিং নিয়ে হতাশার কথা জানিয়েছেন হাবিবুল বাশার।

ঢাকার প্রথম পর্বে মোট ছক্কা ৮৭টি। সবচেয়ে বেশি ৯টি ছক্কা হাকিয়েছে কুমিল্লা ওয়ারিয়র্সের লঙ্কান ব্যাটসম্যান দাসুন সানাকা। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৮টি ছক্কা চট্টগ্রামের ইমরুলের দখলে।

ব্যক্তিগত রান সংগ্রাহকের তালিকায় সফল জাতীয় ক্রিকেটাররা। সেরা পাচের মধ্যে চারজনই বাংলাদেশের। ১১৭ রান নিয়ে সবার উপরে ইমরুল কায়েস। লঙ্কান অলরাউন্ডার দাসুন শানাকার (৭৫*) পরেই আছেন তামিম।

তবে বিপিএলের সপ্তম আসরে এখনো সেঞ্চুরির দেখা মেলেনি। তবে, অর্ধশতক পেয়েছেন দশ ক্রিকেটার।