জোরালো হচ্ছে আন্দোলন,জামিয়ার পাশে অন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরাও

ভারতের বিতর্কিত নাগরিকত্ব বিল নিয়ে উত্তাল যেন ক্রমে ক্রমে বেড়েই চলছে । উত্তর-পূর্ব ভারতসহ বেশ কয়েকটি স্থানে ক্রমশ বেড়েই চলছে । এদিকে রোববার বিকালে দক্ষিণ দিল্লির জামিয়া মিলিয়া ইসলামিয়া সংলগ্ন নিউ ফ্রেন্ডস কলোনিতে নাগরিকত্ব বিলের প্রতিবাদে বিক্ষোভ হয়। এ ঘটনার পর দিল্লি পুলিশ বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে ঢুকে ছাত্রছাত্রীদের উপর চড়াও হয়। আটক করা হয় ১০০ জনের বেশি ছাত্রছাত্রীকে।

এদিকে আটক সহপাঠীদের অবিলম্বে মুক্তির দাবিতে গত রাতেই কয়েকশো পড়ুয়া দিল্লি পুলিশের সদর দফতর ঘেরাও করেন ছাত্রছাত্রীরা । তবে ঘটনার আঁচ পড়ে উত্তরপ্রদেশের আলিগড় বিশ্ববিদ্যালয়েও। সেখানেও ছাত্র-পুলিশের সংঘর্ষ বাধে। সংবাদসংস্থা সূত্রে খবর, আলিগড়ে ৩০ জন ছাত্র ও ১০ জন পুলিশ কর্মী আহত হয়েছেন। আলিগড় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ আগামী ৫ জানুয়ারি পর্যন্ত ক্যাম্পাস বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

এদিকে এ ঘটনার উত্তাপ চারিদিকে ছড়িয়ে পড়ে দ্রুত, বহু বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্ররা পাশে থাকার বার্তা দিয়েছেন বিক্ষুব্ধ ছাত্রদের। মধ্যরাতেই রাস্তায় নেমেছেন যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্ররা। ঘটনার প্রতিবাদে ছাত্ররা একজোট হয়ে মিছিল করেছেন বেনারস হিন্দু বিশ্ববিদ্যালয়েও। জামিয়ার ছাত্রদের পাশে দাঁড়িয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যও।