বরের বাড়ি বউ গেল, আর কাজী গেল জেলে!

কিছুক্ষণ পরেই নতুন বউ নিয়ে গাড়িতে উঠে বাড়ি ফিরবেন বর। ঠিক এমন সময় হাজির হলেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট, আর নিমিষেই বাড়িতে নেমে এল নীরবতা। এমনটাই ঘটেছে গাইবান্ধা সদর উপজেলায়। এ উপজেলায় ১৬ বছর বয়সী এক কিশোরীকে বিয়ে দেয়ার অভিযোগে কাজীকে ছয় মাসের কারাদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। সাজাপ্রাপ্ত কাজীর নাম মো. আবদুল মোত্তালিব মীর।

লক্ষ্মীপুর ইউনিয়নের নিকাহ রেজিস্ট্রার। তিনি ওই ইউনিয়নের গোবিন্দপুর জামপাড়া গ্রামের আবদুল গণির ছেলে।

ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মোস্তাফিজুর রহমান বাদলের সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার গভীর রাতে গোবিন্দপুর এলাকার ১৬ বছর বয়সী এক কিশোরীর সঙ্গে পাশের ফকিরপাড়া গ্রামের মাসুদ রানার (২২) বিয়ে হয়।

এ খবর পেয়ে এলাকাবাসী কাজীর বাড়ি ঘেরাও করে ইউএনওকে খবর দেন। পরে ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক ইউএনও প্রসূন কুমার কাজী মোত্তালিবকে ছয় মাসের কারাদণ্ড দেন।

উল্লেখ্য, ওই কাজী নিজের বাড়িতে এ বিয়ে নিবন্ধন করেছিলেন।