দেশে ফেরার পর সু চিকে রাজকীয় অভ্যর্থনা

আন্তর্জাতিক আদালতে রোহিঙ্গাদের ওপর অমানবিক আচরনের অভিযোগ এনে মিয়ানমারের বিরুদ্ধে মামলা করেছে গাম্বিয়া। গত বুধবার(১১ডিসেম্বর) গণহত্যার অভিযোগে বিচারের মুখোমুখি হয়ে মিয়ানমারের পক্ষে যুক্তি দিতে নেদারল্যান্ডসের হেগে অবস্থিত আন্তর্জাতিক বিচার আদালতে (আইসিজে) অবস্থান করেন মিয়ানমারের নেত্রী অং সান সুচি।প্রথম দিন গাম্বিয়ার দেড় ঘন্টা বক্তব্যে পর পরেন দিন সুচি’র দেড় ঘন্টা বক্তব্য দেন।

এদিন গাম্বিয়ার অভিযোগ স্বীকারের ধারের কাছেও যেতে দেখা গেল না সুচিকে। বরং তিনি আরও উল্টো বললেন। বক্তব্যে বলেন- ‘রাখাইন রাজ্যের সমস্যাটি আন্তর্জাতিক আদালতে আনার মতো বিষয় নয়। মিয়ানমার যেসব চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করছে তা গাম্বিয়ার উপলব্ধি করা উচিত’ ।

দুপক্ষের শুনানি শেষ হয়, দেশের ফেরার পর দেশের হয়ে লড়ার জন্য অং সান সু চিকে রাজসিক অভ্যর্থনা জানানো হয়েছে। দেশে পৌঁছানোর পর সু চির কালো গাড়ি যখন ধীরে ধীরে গন্তব্যের দিকে যাচ্ছিল তখন সড়কের দু’পাশে উপস্থিত ছিলেন শত শত মানুষ। তাদের হাতে ছিল পতাকা, সু চির ছবি এবং এসময় তারা সু চিকে জোর গলায় অভিনন্দন জানান। সু চিও গাড়ি জানালা খুলে তাদের অভিনন্দনের জবাব দেন। এসময় তার মুখে ছিল হাসি।
সূত্র: রয়টার্স