‘এক ব্যক্তিরই ৩০টি ঘর পুড়ে ছাই হয়ে যায়’

গতকাল (১১ ডিসেম্বর) রাতে ফতুল্লার পশ্চিম মাসদাইর বারৈভোগ এলাকায় ভয়াবহ এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। অগ্নিকাণ্ড ঘটার মুহূর্তে মধ্যেই পুড়ে ছাই হয়ে যায় প্রায় অর্ধশত ঘর। বাসা বাড়ির লোকজন দ্রুত বেরিয়ে নিরাপদে যেতে পারলেও রক্ষা করা যায়নি ঘরের আসবাবপত্রসহ মালামাল।

অগ্নিকাণ্ডের খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের দুটি ইউনিট ঘটনাস্থলে এসে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। এ ব্যাপারে এলাকার বিসিক ফায়ার সার্ভিস সূত্র থেকে যায়- ‘বিদ্যুতের শর্টসার্কিট থেকে আগুন লেগেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। তবে আগুন নিয়ন্ত্রণ করে অগ্নিকাণ্ডের কারণ ও ক্ষতির পরিমাণ জানতে তদন্ত চলছে’ ।

এদিকে অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্তরা জানান, ‘আগুনের সূত্রপাত হওয়ার পর দ্রুত তা চারপাশে ছড়িয়ে পড়ে। বাসা বাড়ির লোকজন দ্রুত বেরিয়ে নিরাপদে যেতে পারলেও রক্ষা করা যায়নি ঘরের আসবাবপত্রসহ মালামাল। মুহূর্তেই পুড়ে ছাই হয়ে যায় প্রায় অর্ধশত ঘর। এ সময় আগুন নেভাতে গিয়ে অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন’ ।

ক্ষতিগ্রস্তরা আরও জানান- ‘পুড়ে যাওয়া ঘরের মধ্যে ৩০টি ঘর ছিল মজিবুর রহমান নামে এক ব্যক্তির। আর ছয়টি ঘর ছিল শামসুদ্দিন নামের এক ব্যক্তির। বাকি ঘরগুলো বিভিন্ন লোকজনের ছিল। এসব ঘরে গার্মেন্টকর্মীসহ বিভিন্ন পেশার লোকজন ভাড়া থাকতেন’ ।