মুজিব কোর্টের বোতাম সঠিক জায়গায় ছিল না উপস্থাপকের! তীব্র সমালোচনা

জমকালো আয়োজনের মধ্য দিয়ে গতকাল রবিবার অনুষ্ঠিত হয়ে গেল বঙ্গবন্ধু বিপিএল ২০১৯-এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠান। জাঁকজমক পূর্ণ এই অনুষ্ঠানে এসেছিলেন বাংলাদেশের খ্যাতনামা শিল্পীসহ বলিউডের জনপ্রিয় অভিনেতা ও শিল্পীবৃন্দ । সেই সাথে এসেছিলেন বলিউডের জনপ্রিয় অভিনেতা সালমান খান।

এরকম মেগা কোন ইভেন্টে সামান্য ক্রুটি-বিচ্যুতি থাকতেই পারে। এটা খুবই স্বাভাবিক। কিন্তু এই ক্রুটি যেন সব কিছু ছাপিয়ে গেছে। সেটা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে একটু চোখ বুলালেই বোঝা যায়। অনুষ্ঠানের শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত সমালোচনার তীর বেশীরভাগ সময় উপস্থাপকের দিকেই।

অনুষ্ঠানে প্রথম নজরেই স্টেডিয়ামে উপস্থিত দর্শকরা তাদের দেখে একে অন্যের দিকে তাকাতে থাকেন। অনেকেই আবার বলেই ফেলেন- যেখানে এতো এতো ইয়ং, এনার্জেটিক, স্মার্ট তরুণ-তরুণীরা বিভিন্ন মঞ্চে দাপিয়ে বেড়াচ্ছে, সেখানে তারা কেন?

যদিও জুয়েল এবং সঙ্গীতা স্ব স্ব অবস্থানে অবশ্যই ভালো। তারা হয়তো ভালো শিল্পী, উপস্থাপক এবং সমন্বয়ক বটে। কিন্তু বিপিএল ২০১৯-এর মত একটি বিশাল আয়োজনে তারা কতটা মানানসই সেটা অবশ্য বুঝা উচিত ।

তবে সবচেয়ে দৃষ্টিকটু ছিল তাদের ড্রেস কোড। কেউ কেউ বলছেন, এই রকম একটি অনুষ্ঠানে পোষাক নিয়ে জুয়েলের ভাবা উচিত ছিল। উপস্থাপকের মুজিব কোর্টের বোতাম সংশ্লিষ্ট জায়গায় ছিল না। পরে অবশ্য সেটি ঠিক করেই মঞ্চে আসেন তিনি। এই নিয়েও কম কথা উঠেনি ।

আবার অনেকেই শিল্পীদের নিয়ে সমালোচনা করেছেন। বিপিএলের এবারের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান একদমই পছন্দ হয়নি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের অধ্যাপক ড. আসিফ নজরুলের। তাইতো বিপিএলের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের সমালোচনা করে ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন তিনি।

ফেসবুক পেজে তিনি লেখেন, ‘বঙ্গবন্ধুকে কীভাবে সম্মান দেখাতে হবে তা উনার দল সম্ভবত জানে না। বিপিএল-এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের বিভিন্ন আলামত দেখে সেটাই মনে হলো’।