৯ লাখ টাকা দামের ক্যামেরা মাত্র সাড়ে ৬ হাজার টাকায়!

৯ লাখ টাকা মূল্যের ক্যামেরা লেন্স মাত্র ৬,৫০০ টাকায় কিনলেন ক্রেতা। কথাটি আষাঢ়ে গল্প বলে মনে হলেও সত্যি এমনটাই ঘটেছে মার্কিন ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান আমাজনের কল্যাণে।

তবে বলতে গেলে ভাগ্যের জোরেই পানির দরে এতো দামি ক্যামেরার লেন্স কিনেছেন ওই ক্রেতা।

মার্কিন ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান আমাজনের ভুলের কারণেই এমনটা হয়েছে বলে জানিয়েছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম জি-নিউজ।

সংবাদমাধ্যমটি আরও জানিয়েছে, প্রতি বছরই প্রাইম ডে উপলক্ষে গ্রাহকদের জন্য প্রচুর অফার দেয় আমাজন। এ বছরেও ১৫ থেকে ১৬ জুলাই প্রাইম ডে-এর পসরা সাজিয়েছিল ই-কমার্স সংস্থাটি। সেদিন ৯৯.৩% ছাড়ে সীমিত সময়ের জন্য একটি অফার দেয় আমাজন। অবিশ্বাস্য সেই অফারটি চোখে পড়ে যায় এক দল ক্যামেরাম্যানের।

তারা দেখেন, ওয়েবসাইটটির ক্যামেরা বিভাগে প্রায় প্রতিটি ক্যামেরা ও ক্যামেরার সরঞ্জামই পাওয়া যাচ্ছে ৯৪ মার্কিন ডলারে, যা ভারতীয় মুদ্রায় ৬,৫০০ টাকা! ৩০,০০০ টাকার ডিজিটাল ক্যামেরা থেকে শুরু করে ৯ লাখের ক্যামেরা লেন্স, সবই ৯৯.৩ শতাংশ ছাড়ে মিলছে সেই ওয়েবসাইটে। অফারটি দেখা মাত্রই অর্ডার করে দেন অনেকে।

এদের মধ্যে সবচেয়ে ভাগ্যবান ক্রেতা ৯ লাখের ক্যানন লেন্স (Canon EF 800mm f/5.6L IS) কেনেন ৬,৫০০ টাকায়।

পানি দরে এসব প্রয়োজনীয় পন্য কিনতে পেরে বিষয়টি বিশ্বাস করতে পারেননি না ক্রেতারা।

তবে আমাজনের প্রতিষ্ঠাতা জেফ বেজসকে ধন্যবাদ জানাতে ভুলেননি তারা। এমন সস্তায় কিনতে পেরে সাইটের স্ক্রিনশট তুলে সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করে জনৈক ক্রেতা লিখেন, লেন্সটি কেনা আমার অনেক দিনের স্বপ্ন ছিল। স্বপ্নপূরণের জন্য জেফ বেজসকে ধন্যবাদ।

জানা গেছে, অনেকে অর্ডার করেও কাঙ্ক্ষিত পন্য পাননি। কারণ অফারটি মাত্র কয়েক মিনিটের জন্যই দৃশ্যমান ছিল আমাজনের সাইটে। ফলে অনেককেই নিরাশ হতে হয়।

এতো মূল্যহ্রাসে এসব পন্য ছেড়ে দেয়ার রহস্য বিষয়ে আমাজন কর্তৃপক্ষ থেকে কোনো বক্তব্য না পাওয়া গেলেও অনেকেই ধারণা করছেন, ৯৯.৩ শতাংশ ছাড়ের বিষয়টি কোনো অফার ছিল না, আমাজনের প্রযুক্তিগত ত্রুটির ফলেই সব ক্যামেরার দাম একই হয়ে যায়। সে হিসাবে ৯ লাখ টাকার ক্যামেরার মূল্য ৬ হাজার টাকা হয়ে যায়।